1. akfilmmultimedia@gmail.com : admin2020 :
  2. teknafchannel71@gmail.com : teknaf7120 :
বৃহস্পতিবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:২১ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
টেকনাফ হাসপাতালের পিয়ন ২০হাজার ইয়াবাসহ আটক ! দীর্ঘ দিন ধরে অ্যাম্বুলেন্সে করে ইয়াবা পাচার করছে একটি চক্র টেকনাফে ডিএনসি’র অভিযানে আইস ও ইয়াবাসহ আটক -১ টেকনাফে অজ্ঞাত লাশের পরিচয় পাওয়া গেছে আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে জমি জবর দখলের অপচেষ্টা কক্সবাজারে ১১ বিদ্রোহী প্রার্থীকে সাময়িক বহিস্কার করলো জেলা আওয়ামী লীগ হ্নীলা ০৭ ওয়ার্ডে জামাল মেম্বারের চাল বিতরণের বাঁধা দেওয়া কে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ, আহত দুই। ২০২৩ সাল থেকে নতুন শিক্ষাক্র তৃতীয় শ্রেণি পর্যন্ত থাকছে না বার্ষিক পরীক্ষা ষ থাকবে না পিইসি-জেএসসি পরীক্ষা ষ নবম-দশমে বিভাগের বিভাজন থাকবে না ষ এসএসসি পরীক্ষা শুধু দশম শ্রেণির পাঠ্যক্রমে হবে ষ একাদশে বিভাগ নির্বাচন করবে শিক্ষার্থী টেকনাফ শাহপরীরদ্বীপে নির্বাচনী প্রচারনায় প্রতিদ্বন্দ্ধী প্রর্থীর হামলা : গুরুত্বর আহত ১৪ জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানানো জন্য সকলের প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন : আরাফাত সানী টেকনাফে নির্বাচনী প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের সাথে মতবিনিময় করলেন কক্সবাজার জেলা প্রশাসক।

টেকনাফে বলৎকারের ঘটনায় থানায় অভিযোগ

  • আপডেট সময় : শনিবার, ২৪ জুলাই, ২০২১
  • ৮১ বার পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক,

কক্সবাজারের টেকনাফ সদর ইউনিয়নের কচুবনিয়া (০৭) ওয়ার্ড এলাকায় ১২ বছরের কিশোরকে জোরপূর্বক বলৎকারের ঘটনা ঘটেছে। এই ঘটনায় দুইজন ধর্ষকের বিরুদ্ধে টেকনাফ মডেল থানায় ভিকটিমের মা বাদী হয়ে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে। বলৎকার কারীরা হলেন একই এলাকার লোকমান সওদাগরের ছেলে জিয়াবুল (২০) ও আব্দুর রহমান এর ছেলে মোঃ ফায়সেল (১৮)।

উল্লেখ্য যে, টেকনাফ সদর ইউনিয়নের কচুবনিয়া এলাকার আব্দুর রশিদ এর ছেলে স্থানীয় একটি কেরাতুল কোরআন নামের মাদ্রাসার হেফজ বিভাগের ছাত্র। গত ১৮/ ০৭/ ২০২১ইং তরিখ দুপুর অনুমান ১২ টার দিকে প্রতিদিনের মতো মাদ্রাসার ছুটির শেষে বাড়ি ফেরার পথে ছাত্রকে রাস্তায় একা পেয়ে লম্পট জিয়াবুল (১৮) ও মোঃ ফায়সেল (১৮) ধরে আাড়ালে নিয়ে যেতে চাইলে ভিকটিম চিৎকার করলে চাকু দিয়া মৃত্যুর ভয় দেখিয়ে রাস্তার উত্তর পাশে বহুদিনের পরিত্যক্ত খালি একটি দোকানে প্রবেশ করিয়ে জোরপূর্বক তাদের ইচ্ছেমতো বলৎকার করে। ভিকটিম আঘাত সয্য করতে না পেরে একটি বড়করে চিৎকার দেয় তখন রাস্তা থেকে বাড়িতে যাওয়া একি মাদ্রাসার ছাত্র ইছা আলী ( ৯), সালমান (১৪),শাকিবুল( ১৩)  তাহার শব্দ শুনে দৌড়ে এগিয়ে গেলে ধর্ষকরা তাদেরকে ধাওয়া করে তাড়িয়ে দেয়, পরে ভিকটিমকে কাউকে কিছু বল্লে মেরা ফেলার হুমকি দিয়ে ছেড়ে দেয়। পরে ছেলে বাড়িতে ফিরে ভয়ে কাউকে কিছু বলতে রাজি হননি। ভিকটিমের মা তাঁর শারীরিক অবস্থা অবনতি দেখে তার সহকর্মীদের কাছথেকে জানতে চাইলে তারা বিষয়টি খুলে বলেন পরে টেকনাফ সদর হাসপাতালে নিয়েগিয়ে চিকিৎসা করে, টেকনাফ মডেল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করে । এই বিষয়ে ভিকটিমের পরিবার ও এলাকা বাসী সকল প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করে,  ধর্ষকদের আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন।

টেকনাফ মডেল থানার ওসি মোঃ হাফিজুর রহমান জানান, অভিযোগ হাতে পেয়েছি ঘটনা তদন্ত চলছে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর