1. akfilmmultimedia@gmail.com : admin2020 :
  2. teknafchannel71@gmail.com : teknaf7120 :
রবিবার, ২৯ মে ২০২২, ০৫:৩৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
টেকনাফের শীর্ষ মানব পাচারকারী ইয়াবা ডন ইয়াছিন ধরা ছোঁয়ার বাহিরে টেকনাফে বিদেশি মদ ও ইয়াবার বিক্রির ডিলার আবসার “অধরা টেকনাফে চোলাই মদ সহ নারী আটক! টেকনাফে আলোচিত নুরুল হক ভূট্রোর সুষ্ঠু বিচার ও গ্রেফতারের দাবীতে ইউএনও’র নিকট স্বারকলিপি প্রথমে প্রেম পরে বিয়ের প্রলোভনে দৈহিক সম্পর্ক এরপরে টাকা ও স্বর্ণ লোট থানায় অভিযোগ টেকনাফে ডিএনসি’র অভিযানে ইয়াবাসহ আটক দুই ||টেকনাফ ৭১ টেকনাফ ভূমি কর্মকর্তাদের টেবিলে নিয়োগপ্রাপ্ত দালাল !  বিনম্র শ্রদ্ধায় স্বরণে মরহুম একরামুল হক, চতুর্থ মৃত্যু বার্ষিকীতে যুবলীগ নেতা ফজলুল কবির খন্ড খন্ড হয়ে টেকনাফে আসছে রোহিঙ্গা! আটক এক পরিবার রচনা প্রতিযোগিতায় উখিয়া-টেকনাফের শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণ না করতে কলেজের নোটিশ

উখিয়ার ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের কাউন্সিল বিদ্রোহীদের বাধার মুখে ||টেকনাফ ৭১

  • আপডেট সময় : শনিবার, ১৪ মে, ২০২২
  • ১৮ বার পড়া হয়েছে

বিশেষ প্রতিনিধি: উখিয়া

কক্সবাজারের উখিয়ার হলদিয়াপালং ইউনিয়নের বিদ্রোহীদের বাধার মুখে পড়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের কাউন্সিল।

শুক্রবার রাতে উখিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক রাসেল চৌধুরী সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি স্টাটাস দেওয়া হয়েছে। যা হুবহু তুলে ধরা হলো “উখিয়ার হলদিয়া পালং ইউনিয়নে বিদ্রোহীদের বাধার মুখে পূর্বনির্ধারিত জামতলী প্রাইমারী স্কুল, মরিচ্যা পালং উচ্চ বিদ্যালয় ও মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতি বালিকা বিদ্যালয়ে মিটিং করার স্থান পাচ্ছে না আওয়ামী লীগ!!”

রাসেল চৌধুরী স্টাটাসের পরপরই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে যায়।সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সাবেক ছাত্রলীগ নেতা ইকবাল ফরহাদ নীলয় লিখেছেন “উখিয়া হলদিয়া পালং ইউনিয়নে বিদ্রোহী চেয়ারম্যানের বাধার মুখে আওয়ামীলীগ…
কক্সবাজার জেলা সাংগঠনিক টিমের পূর্বনির্ধারিত জামতলী প্রাথমিক বিদ্যালয়, মরিচ্যা পালং উচ্চ বিদ্যালয়, মুক্তিযোদ্ধা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের মিটিং করার জন্য স্থান না দেওয়ার জন্য প্রতিটি বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকদের ফোন করে হুমকি দিচ্ছে নৌকার বিদ্রোহী’রা।”

দৈনিক কালের কণ্ঠ পত্রিকার জেলা প্রতিনিধি তোফাইল আহমদ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কমেন্ট করেছেন “এমন উদ্বেগজনক বিষয়টির স্ট্যাটাসের দীর্ঘ এক ঘন্টার সময়েও দু’জন ছাড়া অন্য কারো কোন মন্তব্য নেই। এটা কি ভয়ে আর ডরে নাকি আওয়ামী লীগের সাংগটনিক দুর্বলতার দৃশ্যমান চিত্র বুঝলাম না। হায়রে জাতির জনকের হাতে গড়া দল আওয়ামী লীগের আজ এমন দুর্দশা!”

এবিষয়ে হলদিয়াপালং ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ও হলদিয়াপালং ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক কমিটির সদস্য অধ্যক্ষ শাহ আলম চৌধুরী বলেন, শনিবার (১৪ মে) হলদিয়াপালং ইউনিয়নে ৩নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের কাউন্সিল নির্ধারিত করা হয়েছে মরিচ্যা মুক্তিযোদ্ধ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের হল রুমে। বৃহস্পতিবার বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও সভাপতিতে কাউন্সিলের জন্য হলরুম না দেওয়ার জন্য ফোন দিয়ে হুমকি দেন হলদিয়াপালং ইউনিয়ন বিদ্রোহী চেয়ারম্যান ইমরুল কায়েস চৌধুরী। পরে আমরা সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করে মরিচ্যা পালং উচ্চ বিদ্যালয়ে করার প্রস্তুতি নেওয়া হলে সেখানেও বাধা দেয় চেয়ারম্যান ইমরুল কায়েস চৌধুরী৷

তিনি আরও বলেন, রাত ১১ টায় উখিয়া-টেকনাফ সাবেক সাংসদ আব্দুর রহমান বদি হলদিয়াপালং সাংগঠনিক টিমের সাথে বসে আগামী কালের কাউন্সিল একটি ক্লাবে করা হবে৷ ইতিমধ্যে হলদিয়াপালং ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক টিম জেলা আওয়ামী লীগ, উপজেলা আওয়ামী ও বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থাকে অবহিত করেছি৷

উখিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী বলেন, উখিয়ার অন্যান্য ইউনিয়নের মধ্যে হলদিয়াপালং ইউনিয়নের বিদ্রোহীদের সংখ্যা বেশি৷ গত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে যারা নৌকায় বিরোধিতা করেছে তাদেরকে আওয়ামী লীগের কাউন্সিল অংশগ্রহণ করতে দেওয়া হবে না বলে ঘুষান দিয়েছে সরকার।তিনি আরও বলেন, যারা কাউন্সিল বাধা দিচ্ছে তারা সরকারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে৷

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর