1. akfilmmultimedia@gmail.com : admin2020 :
  2. teknafchannel71@gmail.com : teknaf7120 :
মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১০:০৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
টেকনাফের শামলাপুরে চলাচলের রাস্তা বন্ধ করে দেওয়ায় বাড়ির সকলে দুই সপ্তাহ ধরে অবরুদ্ধ! শিশুশ্রম ও বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে স্থানীয় সরকার, ধর্মীয় ও শ্রমিক নেতাদের সাথে মতবিনিময় অপহরূত ছাত্রীর ১০দিনেও সন্ধান পায়নি পরিবার! থানায় মামলা, উদ্ধারে কাজ করছে পুলিশ টেকনাফে পুলিশি অভিযানে মিলল ১লক্ষ পিস ইয়াবা টমটম চালক আটক ভাষা শহীদদের প্রতি ফুলদিয়ে শ্রদ্ধা জানালেন টেকনাফ মডেল থানার পুলিশ মাতৃভাষা অর্জনে জীবন উৎসর্গকারী ভাষা সৈনিকদের প্রতি শ্রদ্ধা ও দোয়া জানালেন সাংবাদিক নাছির উদ্দীন রাজ টেকনাফে বিদ্যুতের গ্রিডের জন্য প্রস্তাবিত জমি থেকে মাটি কাটার দায়ে ২লক্ষ টাকা জরিমানা মাদক কারবারির বিরুদ্ধে দুদকের মামলা! ১০ কোটি টাকার মাদক সহ জাদিমুড়ার খায়রুল বশর আটক ইয়াবা ব্যবসায়িরা কিভাবে তালিকা থেকে বাদ যায়! প্রধানমন্ত্রীকে বলবো- শাহিন বদি

নাফ নদীর বড়শিতে ধরা পড়ল ২৮ কেজি ওজনের দু’কোরাল

  • আপডেট সময় : বুধবার, ২২ নভেম্বর, ২০২৩
  • ২৬১ বার পড়া হয়েছে

মোহাম্মদ শেখ রাসেল, টেকনাফ। 

কক্সবাজার সীমান্ত উপজেলা টেকনাফের নাফ নদীতে এক জেলের বড়শিতে ফের ধরা পড়লো ২৮ কেজি ওজনের দুইটি কোরাল মাছ। এ মাছটি ১০৫০ টাকা করে মোট ২৯ হাজার ৪’শ টাকায় বিক্রি করা হয়।

বুধবার (২২ নভেম্বর) সকালে দিকে টেকনাফের হ্নীলা ইউনিয়ন ওয়াব্রাং দিয়ে নাফনদী থেকে মাছ দু’টি এক জেলের বড়শিতে ধরা পড়ে। পরে মাছ জেলেদের কাছ থেকে আলী আহমদ নামের এক মাছ ব্যবসায়ী কিনে নেন।

তিনি বলেন,বুধবার সকালে হ্নীলা ইউনিয়ন এলাকার মোহাম্মদ ইসমাইল ও জামাল ২৮ কেজি ওজনের দুইটি কোরাল মাছ বাজারে বিক্রি করতে আনেন। পরে তার সাথে দর-কষাকষি শেষে কেজি ১০৫০ টাকা করে ২৮হাজার ৪০০ টাকায় কিনে নেওয়া হয়।

তিনি আরো বলেন,প্রায় সময় নাফনদীতে জেলেদের বড়শিতে বড় কোরাল সহ বিভিন্ন জাতের মাছ ধরা পড়ে।এতে জেলেরা খুব আনন্দিত হয়। এবং ক্রয়কৃত মাছটি বেশি দামে বিক্রি করার জন্য কক্সবাজারের নেওয়া হবে বলে তিনি।

জেলে মোহাম্মদ ইসমাইল ও জামাল বলেন, সকালে দিকে বড়শি নিয়ে নাফনদীর ওয়াব্রাং এলাকায় দিয়ে মাছ ধরার জন্য যায়। প্রায় ২ ঘন্টা পরে বড়শিতে ২৮ কেজি ওজনের দুইটি বড় কোরাল ধরা পড়ে। এরপর অন্যান্য জেলেদের সহায়তায় মাছ দু’টি হ্নীলা বাজারে কেজি ১০৫০ টাকা করে ২৮হাজার ৪০০ টাকায় বিক্রি করা হয়।

এ বিষয়ে টেকনাফ উপজেলার জ্যেষ্ঠ মৎস্য কর্মকর্তা মো. দেলোয়ার হোসেন বলেন, কোরাল দ্রুত বর্ধনশীল মাছ। পরিবেশ ভালো পেলে মাছটি সাধারণত ৩০ থেকে ৩৫ কেজি ওজনের হয়ে থাকে। কোনো কোনো সময় এর বেশি ওজনের কোরালও পাওয়া যায়। এই নাফ নদীর মাছ খুবই সুস্বাদু। তাই জেলেরা দামও ভালো পেয়ে থাকেন। এদিকে শীত মৌসুমে নাফ নদীতে বড়শি ফেললে এখন বড় বড় কোরাল মাছ পাওয়া যাচ্ছে বলে জানান তিনি।#

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর