1. akfilmmultimedia@gmail.com : admin2020 :
  2. teknafchannel71@gmail.com : teknaf7120 :
রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ০৮:১১ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
মাত্র ৫ মাস ফ্রিল্যান্সিং শিখে সফল সুবহান আনছারি, মাসিক আয় প্রায় ১ লাখ টাকা যৌতুকের টাকা দিতে না পারায় ১০ মাসের শিশু সন্তান সহ স্ত্রী কে ঘর ছাড়া করলেন পাষণ্ড স্বামী! মৃ’ত মাকে কবরের মাটি খুঁড়ে বের করার চেষ্টা অবুঝ ছোট শিশুর! টেকনাফের নাফ নদী থেকে ২লাশ উদ্ধার নাফ নদীতে অর্ধ গলিত অজ্ঞাত মৃতদেহ উদ্ধার রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরু করতে ইতিবাচক মিয়ানমার হ্নীলা ডিস্ট্রিবিউটর ব্যবসায়ী সমিতির ঈদ পরবর্তী শুভেচ্ছা বিনিময় ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত ‘৩০ লাখে প্রশ্ন কিনেও’ ভালো ফল করতে পারেননি যে পরীক্ষার্থীরা! দুদকের মামলায় টেকনাফের পৌর কাউন্সিলর মনিরুজ্জামানের সম্পদ জব্দের নির্দেশ হ্নীলাতে কাজীর নতুন সহযোগীর দায়িত্ব পেল মুফিজুর রহমান

টেকনাফে স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ

  • আপডেট সময় : শুক্রবার, ২১ জুন, ২০২৪
  • ৩১ বার পড়া হয়েছে

ফারুকুর রাহমান, টেকনাফ ৭১ ।

কক্সবাজারের টেকনাফ পৌরসভার পুরান পল্লান পাড়ায় গুলবাহার প্রকাশ গুলছের (৪৫) নামে এক গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যা করার অভিযোগ উঠেছে তার স্বামী বিরুদ্ধে। বৃহস্পতিবার বিকালে টেকনাফ পৌরসভার ২নং ওয়ার্ড পুরান পল্লান পাড়া ওরুমের ছড়া গ্রামে এই ঘটনা ঘটে।

নিহত গুলবাহার প্রকাশ গুলছের উপজেলার টেকনাফ পৌরসভার ২নং ওয়ার্ড পুরান পল্লান পাড়া গ্রামের মৃত বশির আহমদের মেয়ে। এ ঘটনায় ঘাতক স্বামী নুরুল ইসলাম পলাতক রয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয়রা জানান, পারিবারিক কলহের জের ধরে ২য় স্ত্রী গুলবাহার প্রকাশ গুলছেরকে ঘাতক স্বামী প্রায়ই সময় মারধর ও মানসিকভাবে নির্যাতন করতো। এমনকি নিহত গুলছের অন্য মানুষের বাসা-বাড়িতে কাজ করে কষ্টে আয় করা টাকা তার স্বামী হাতে দিত। পরবর্তীতে হঠাৎ একটা কথায় বাড়াবাড়ি হলে বরাবরের মতই বেধড়ক মারধর করে গুরুতর জখম করে আহত করে। ব্যাপক মারধর করার কারণে গুলছের অসুস্থ হয়ে পড়লে অবস্থা গুরুতর হওয়ায় প্রথমে টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

সেখানে অবস্থার অবনতি হলে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে উখিয়ার বালুখালীতে মারা যায়।

এদিকে এ হত্যার ঘটনাটি গোপন করে ঘাতক স্বামী নুরুল ইসলাম, ১ম স্ত্রী সমজিদা বেগম ও তার সন্তানদের যোগসাজশে লাশ দাফন কাফনের প্রক্রিয়া চলাকালীন নিহতের ভাই আব্দুল করিম খবর পেয়ে বিষয়টি পুলিশকে অবহিত করা হয়।

খবর পেয়ে টেকনাফ মডেল থানা পুলিশের একটি দল দ্রুত ঘটনাস্থলে এসে লাশটি উদ্ধার করে থানা নিয়ে যায়।

নিহতের বড়বোন খতিজা জানান, আমার বোনের স্বামী আমার বোনকে প্রায় সময় মারধর ও নির্যাতন করতো। গতকালকেও পিটিয়ে আহত করে হাসপাতালে নেওয়ার পথিমধ্যেই মারা যায়। তদন্তপূর্বক এ হত্যার সুষ্ঠু বিচার দাবি করছি।

টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ ওসমান গনি জানান, একটি গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করে কক্সবাজার সদর হাসপাতালের মর্গে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পেলেই বুঝা যাবে হত্যা নাকি স্বাভাবিক মৃত্যু।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর