1. akfilmmultimedia@gmail.com : admin2020 :
  2. teknafchannel71@gmail.com : teknaf7120 :
রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ০৬:৪৩ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
মাত্র ৫ মাস ফ্রিল্যান্সিং শিখে সফল সুবহান আনছারি, মাসিক আয় প্রায় ১ লাখ টাকা যৌতুকের টাকা দিতে না পারায় ১০ মাসের শিশু সন্তান সহ স্ত্রী কে ঘর ছাড়া করলেন পাষণ্ড স্বামী! মৃ’ত মাকে কবরের মাটি খুঁড়ে বের করার চেষ্টা অবুঝ ছোট শিশুর! টেকনাফের নাফ নদী থেকে ২লাশ উদ্ধার নাফ নদীতে অর্ধ গলিত অজ্ঞাত মৃতদেহ উদ্ধার রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরু করতে ইতিবাচক মিয়ানমার হ্নীলা ডিস্ট্রিবিউটর ব্যবসায়ী সমিতির ঈদ পরবর্তী শুভেচ্ছা বিনিময় ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত ‘৩০ লাখে প্রশ্ন কিনেও’ ভালো ফল করতে পারেননি যে পরীক্ষার্থীরা! দুদকের মামলায় টেকনাফের পৌর কাউন্সিলর মনিরুজ্জামানের সম্পদ জব্দের নির্দেশ হ্নীলাতে কাজীর নতুন সহযোগীর দায়িত্ব পেল মুফিজুর রহমান

মেয়েরা চাকরিতে যাওয়ার কারণে বিবাহবিচ্ছেদ বেড়েছে!

  • আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ২১ মে, ২০২৪
  • ৩৯ বার পড়া হয়েছে

 

অনলাইন ডেস্ক :

পাকিস্তানের সাবেক ক্রিকেট অধিনায়ক সাঈদ আনোয়ারের এক মন্তব্যে তোলপাড় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম। তার মতে, মেয়েরা চাকরিতে যাওয়ার কারণে বিবাহবিচ্ছেদ বেড়েছে!

 

আনোয়ারের মতে পাকিস্তানে গত ৩ বছর বিবাহবিচ্ছেদ অন্তত ৩০ শতাংশ বেড়েছে। যার মূলে রয়েছে দেশটিতে নারীদের কাজে অংশ নেয়া।

 

এক ভিডিওতে আনোয়ার বলেন, ‘পাকিস্তানে নারীরা চাকরি করা শুরু করেছে, এরপর গত ৩ বছরে অন্তত ৩০ শতাংশ বিবাহবিচ্ছেদ বেড়েছে। স্ত্রীরা বলে, তুমি জাহান্নামে যাও আমি এখন নিজে উপার্জন করতে পারি। আমি ঘর নিজেই চালাতে পারি। এটা আসলে একটা গেম প্ল্যান, আপনি সঠিক নির্দেশনা না পাওয়া পর্যন্ত এই গেম প্ল্যান বুঝতে পারবেন না।’

 

এক সময়ের তারকা এই ব্যাটার জানান, এমন ঘটনা তিনি বিশ্বের অনেক জায়গায় দেখেছেন, যেখানে নারীরা কাজে যাওয়ার কারণে পরিবারগুলো ধুঁকছে।

 

তিনি আরও বলেন, ‘আমি বিশ্বের অনেক জায়গায় ঘুরেছি। সম্প্রতি আমি অস্ট্রেলিয়া ও ইউরোপ থেকে এসেছি। তরুণরা সেখানে ধুঁকছে, পরিবারগুলোর খুবই বাজে অবস্থা। দম্পতিগুলো লড়াই করছে।’

 

এদিকে নিউজিল্যান্ডের অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন ও অস্ট্রেলিয়ার মেয়রও নাকি এসব বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন বলে জানান আনোয়ার। তিনি বলেন, ‘নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন আমার কাছে বলেছে “কীভাবে আমাদের সমাজ ভালো হবে” অস্ট্রেলিয়ার মেয়র আমাকে বলেছেন, “আমাদের নারীরা কাজে যাওয়ার কারণে আমাদের সংস্কৃতি নষ্ট হয়ে গেছে।###

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর